আমি চিত্রাঙ্গদা

Advertisements

কাঁটা লাগা?

স্যার, সত্যি বলছি – এই ফরেন থেকে আর্বিট লোকজন এসে দেশের বদনাম করে দিয়ে যায় না স্যার, পুরো কেলো কেস। মনে হয় ঘুরিয়ে কানের গোড়ায় দি – সেই মদনদা যেমন টেশন রোডে ট্রাফিক কনিষ্টগোপাল কে দিয়েছিল! কিন্তু স্যাড ম্যাটার স্যার, এরা সব অতিথি – তাদের সঙ্গে ত্যাদ্রামো কত্তে সেই আমির খান বারণ কল্লো না – সেই থেকে মেনে চলি। তবে কিনা স্যার কিছু দিন হলো একটা বলোগ খুলেছি – দু কলম লিকি-টিকি আর কি স্যার। তাই কানের গোড়ায় চাপাটি না মেরে ছন্দে কবিতাটি মেরে দিলাম।ভালো লাগলে চাট্টি কমেন্ট করে দেবেন – ইয়ং রাইটার তো স্যার – ভরসাটা একটু ফর্সা হবে আর কি! 

শুনেছ কি কয়ে গেল অপ্রা উইন্ফ্রী?

কাঁটা দিয়ে খায় নাকো – এইটা কি শুনচি?

শোনো তবে অপু মাসি শোনো দিয়া মন

হাথ দিয়ে খাবার মজা করি বর্ণন

পাকা আম জৈষ্ঠে, কাঁচা সোনা ডাগর 

হাথ বেয়ে রস নামে অমৃতসাগর

চেটে খেলে সেই রস তবে মনে শান্তি

খাও দেখি কাঁটা দিয়ে – দিয়ে দেবে ক্ষান্তি।

আরো বলি শোনো অপু শোনো মন দিয়া

খেয়েছ কি ইলিশ মাছ সর্ষেতে রান্ধিয়া?

কাঁচা রুপো রং তার, স্বাদেতে সে রাজা

ঝোলে খাও, ভাপা খাও, ভাতে খাও ভাজা

যেভাবেই খাও নাকো এটা রেখো মনে

কার ঘাড়ে কটা মাথা ইলিশ কাঁটা গনে?

তবে, তুমি শুনি পটিয়সী কাঁটা দিয়ে খেতে

পঞ্চ-পদে ইলিশ রেঁধে পাত দিলুম পেতে

কাঁটা আছে ছুরি আছে খাও ভরে প্রাণে

শেষ পাতে আম আছে, সেটা রেখো মনে !